Search
Tuesday 24 October 2017
  • :
  • :
English Version

‘ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিতে সমস্যা কোথায়?’-পরিকল্পনামন্ত্রী

‘ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিতে সমস্যা কোথায়?’-পরিকল্পনামন্ত্রী

Sharing is caring!

‘ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিতে সমস্যা কোথায়?’
ডেস্ক রির্পোট: ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৫ 
‘ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিতে সমস্যা কোথায়?’
অর্থনীতিবিদ আবুল বারকাতের বক্তব্যকে নাকচ করে দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ইসলামী ব্যাংকের টাকা নিয়ে কোনো অন্যায় করিনি।

তিনি বলেন, ‘যেহেতু তারা বাংলাদেশে বৈধভাবে ব্যবসা করে। সুতরাং তাদের টাকা নিতে সমস্যা কোথায়? আমি মনে করি, এই টাকা নিয়ে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আয়োজন করে দেশকে সারা বিশ্বের কাছে পরিচিত করেছি।’
রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে উন্নয়ন অর্থনীতি বিষয়ক এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনা মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল গ্রোথ সেন্টার (আইজিসি) ও ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্নেন্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বি আইজিডি) এই সেমিনারের আয়োজন করে।
শনিবার এক অনুষ্ঠানে অর্থনীতিবিদ আবুল বারকাত বলেন, আমি মনে করি ইসলামী ব্যাংককে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের স্পনসর করে সরকার ভুল করেছে। এর মাধ্যমে সরাসরি ইসলামী ব্যাংককে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে এটা ঠেকাতে আমি তখন সরকারকে চিঠি দিয়েছিলাম। কিন্তু আজকের পরিকল্পনামন্ত্রী লোটাস কামালের (পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল) কারণে সেটা ঠেকানো যায়নি।’
আবুল বারকাতের ওই মন্তব্যের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে পরিকল্পনামন্ত্রী মুস্তফা কামাল বলেন, ‘যারা জীবনে কিছু করে নাই, তারাই এসব মন্তব্য করতে পারে। ইসলামী ব্যাংক যদি মৌলবাদে অর্থায়ন করে বা কোনো অন্যায় কাজ করে, সেটা দেখার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক রয়েছে। প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইসলামী ব্যাংকে পাঁচ-ছয়জন স্বাধীন পরিচালক নিয়োগও দিতে পারে।’
২০১১ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপের অন্যতম স্পন্সর হিসেবে সরকারকে ৮০ কোটি টাকা দিয়েছিল বাংলাদেশে ইসলামী ব্যাংকিংয়ের প্রবর্তক এই ব্যাংকটি।